Donate For Mariya (মারিয়ার জন্য ভালোবাসা)

Donate For Mariya (মারিয়ার জন্য ভালোবাসা)




Event Details

Donate For Mariya (মারিয়ার জন্য ভালোবাসা)

Dhaka Medical College Burn and Plastic Surgery Unit

Tuesday, 1 May 2018, 10:00


Event Description


আগুনে পুড়ে গেছে মেয়েটি। কেন ঠিকভাবে চুলা হতে ভাতের পাতিল নামাতে পারল না, কেন ফ্রকের কোনা দিয়ে পাতিল নামাতে গিয়ে আগুনে পুড়ে গেল, সেজন্য আগুন নেভার সাথে সাথেই পুড়ে যাওয়া মেয়ের নাকে, কপালে ঘুষি মারল মেয়ের বাবা। মা ছিল পাশের বাড়িতে। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় মেয়েকে নিয়ে আসা হলো ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

ICU তে ছিল ১৫দিন। সবাই ভেবেছিল হয়ত মারা যাবে মেয়েটি। ভাগ্য সহায় হলো। বেঁচে ফিরল মেয়েটি। তবে তার চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া একেবারেই অনিশ্চিত হয়ে পড়ল। ২১শে মার্চ হতে ৪ঠা এপ্রিল পর্যন্ত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি থাকার পর অসুস্থ অবস্থাতেই নরসিংদীতে তার নিজের গ্রামের বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হলো। কারণ, দিনমজুর বাবা ও অন্যের বাড়িতে কাজ করা মা ইতোমধ্যেই প্রায় ৮০ হাজার টাকা খরচ করে ফেলেছেন। এর বেশি টাকা তারা পাবে কোথায়?

আগুনে পুড়ে যাওয়া মাত্র ৭ বছর বয়সের এই মেয়েটির নাম খাদিজা আক্তার মারিয়া। তার স্কুলের একজন শিক্ষক জানিয়েছেন সে নরসিংদী সদরের বানিয়াছল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণিতে পড়ে।

৪ঠা এপ্রিল বাড়ি নিয়ে আসার পর ৫ এপ্রিল মারিয়াকে নিয়ে যাওয়া হলো একই গ্রামের একজন কবিরাজের কাছে। কবিরাজের পরামর্শেই তার শরীরের পোড়া অংশে ( পিঠ, বুক, হাত, পা) বিভিন্ন রকম ঝাড়ফুঁকের পাশাপাশি তেলপড়া মালিশ করা ও গাছগাছড়ার রস লাগানো হলো কিছুদিন। এতে মারিয়ার অবস্থার আরও অবনতি ঘটতে থাকল।

ফেইসবুকের মাধ্যমে মারিয়ার কিছু ছবি প্রকাশ করা হলো। খুঁজে বের করা হলো মারিয়ার পরিবারকে। মারিয়ার বাড়িতে গিয়ে বিস্তারিত জানার পর অবস্থা বেগতিক দেখে কেবল ৮ ঘন্টার ব্যবধানে নরসিংদীর স্বেচ্ছাসেবকদের সহযোগিতায় ১০ এপ্রিল মারিয়া ও মারিয়ার মাকে ঢাকায় নিয়ে আসা হলো এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলো। ডাক্তার জানিয়েছেন, মেয়েটির শরীরের ১৭% পুড়ে গেছে। তেল মালিশ ও অপুষ্টির কারণে সেই ১৭% এর ৭০% জায়গা ইনফেক্টেড হয়ে গেছে। সম্পূর্ণ চিকিৎসার জন্য তাকে কমপক্ষে ৩-৪ মাস হাসপাতালে থাকা লাগতে পারে
অপারেশন করা লাগবে নিশ্চিত। কিন্তু কবে লাগবে সে ব্যাপারে ডাক্তার নির্দিষ্ট করে কিছু জানাননি। টাকার ব্যপারেও নির্দিষ্ট করে জানা না গেলেও ধারণা করা হচ্ছে, আনুমানিক ৫-৬ লক্ষ টাকার প্রয়োজন হবে। মারিয়াকে নিয়মিত চিকিৎসার পাশাপাশি প্রতিদিন ডিম, ফল, ও পুষ্টিকর খাবার দেওয়া হচ্ছে। তবে আমাদের পক্ষে এতদিন এইসব খরচ বহন করা সম্ভব হলেও এখন আর সম্ভব হচ্ছে না।

মারিয়ার বর্তমান অবস্থা জানতে চান? আইসিইউতে ১৫দিন জীবন্ত লাশের মত থাকা মারিয়া এখন নিজ হাতে খেতে পারে, হাঁটতে পারে। সুস্থ হওয়ার এত কাছাকাছি এসে টাকার অভাবে আবারো লাশ হওয়ার জন্য মারিয়াকে আমরা ঠেলে দিতে পারিনা। তাই তার পরবর্তী দিনের চিকিৎসার জন্য সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

মারিয়া বর্তমানে বেড নং ৫, ব্লু ইউনিট, ৪র্থ তলা, বার্ন ইউনিট বিল্ডিং, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছে। যে কেউ এসে দেখে যেতে পারেন। মারিয়ার সম্পূর্ণ দেখাশোনা করছে আমাদের টিম।

মারিয়া সম্পর্কে যেকোন তথ্য জানতে যোগাযোগঃ
01816656455 (Mesbah Munna)
01752326193 (Shourav Sheikh)

মারিয়ার জন্য সাহায্য পাঠানোর মাধ্যমসমূহঃ
১/ বিকাশ একাউন্ট-
01794013834 (p)
01816656455 (p)
01752326193 (p)
01676416387 (p)

২/ ব্যাংক একাউন্ট-
SB, Account no: 16256
S.M. Mesbah-ul-Haque
Agrani Bank Limited
Meherpur Branch, Meherpur.

৩/ ডিবিবিএল রকেট একাউন্ট-
016764163871

মারিয়াকে আর্থিকভাবে সাহায্য করা সম্ভব না হলেও অন্তত হাসপাতালে এসে কিছুক্ষণ সময় তো আমরা দিতেই পারি। :)

The girl has been burnt in the fire. Because, she could not get the bowl from the stove properly, because she could not maintain her frock from burning in the fire during taking the stove off; her father hit the girl's nose, stoke her forehead. Her mother was in the neighbouring house. The girl was brought to Dhaka Medical College Hospital.

She was admitted in Burn Unit ICU for 15 days. Everybody thought that the girl would die. But she was lucky. She survived. Unfortunately, treatment of the girl became absolutely uncertain. After being admitted to Dhaka Medical College Hospital from 21st March to 4th April, she was taken back to his own village in Narsingdi. Because, her day labourer father and housemaid mother has already spent around 80 thousand taka. Where will they get more money?

The name of the girl, who was burnt in the fire is Khadija Akther Mariya. A teacher of her school said that she read in the class One of Bansal Government Primary School of Narsingdi Sadar.

On April 4, after coming back home from DMC, Mariya was taken to a “Kaviraj” of the same village. At the suggestion of the “Kaviraj”, her body parts were (backs, chest, arms, and legs) embrocated along with various types of oil spills and plants liniment. The situation of Mariya's condition continued to deteriorate.

Some pictures of Mariya were published through Facebook. Then the family of Mariya was found out after going to Mariya's home, and seeing the situation, her mother and Mariya were brought to Dhaka on April 10 and she again admitted to Dhaka Medical College Hospital with the help of the volunteer of Narsingdi. The doctor said that 17% of her body was burnt. Due to oil massage and malnutrition, 70% of the 17% areas have been inferred. For her complete treatment, she may has to stay in hospital for at least 3-4 month and surgery will need surely. But the doctor did not specify the date. Also the Doctor didn't mention the amount of her treatment though approximately 5/6 lakh tk will be needed for her full recovery. In addition to regular treatment, Mariya is being given eggs, fruits, and nutritious food every day. It is possible for us to bear these expenses so much but now it is not possible anymore.

Do you want to know the current status of Mariya?
Mariya, who was admitted to the ICU for 15 days, now she can eat using her own hands, she can walk, she can laugh.
It is so close to being healed, and now we cannot force Mariya to return to the death due to lack of money.
In order to continue her treatment, we need all of your financial, physical co-operation.

Mariya is currently admitted in Bed no 5, Blue Unit, 3rd Floor, Burn Unit Building, Dhaka Medical College Hospital. All are welcomed at DMC to see her. Our team has taken the responsibility of Mariya.

To know more about Mariya, feel free to call;
01816656455 (Mesbah Munna) 01752326193 (Shourav Sheikh)

The way to help Mariya has been mentioned below.

1/ Bkash Account:
01794013834 (p)
01816656455 (p)
01752326193 (p)
01676416387 (p)

2/ Bank Account:
SB, Account no: 16256
S.M. Mesbah-ul-Haque
Agrani Bank Limited
Meherpur Branch, Meherpur.

3/ DBBL Rocket Account:
016764163871

If it is not possible to help Mariya financially, at least we may spend some time with her at the hospital.



Event Place


Dhaka Medical College Burn and Plastic Surgery Unit

, 1000 Dhaka, Bangladesh



View on Facebook

View more events at Dhaka Medical College Burn and Plastic Surgery Unit

Upcoming Events in Dhaka


Leave a comment